নোয়াখালির আঞ্চলিক ভাষা

- মাস্টারমাইন্ড প্রিন্স মাহী

নোয়াখালির আঞ্চলিক ভাষা শুনলে অনেকেই হাঁসি ঠাট্টায় মেতে উঠেন তারা হয়ত জানেনা একটি মানুষ কে কাঁদানো অতি সহজ, কিন্তু একটু মানুষ কে হাঁসানো পৃথিবীর সব চেয়ে কঠিন কাজ আর এই কাজটি নোয়াখালির মানুষ অনায়াসে করে থাকেন তার আঞ্চলিক ভাষার মধ্য দিয়ে, যা শুনে অন্যরা প্রাণ খুলে হাঁসে. নোয়াখালির আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলি তাই বলে এমনটি ভাবা উচিত নয় যে এদেশের ভাষা, সংস্কৃতি, ইতিহাস, সাহিত্য,শিক্ষা সর্বপোরি মুক্তিযুদ্ধে আমাদের অগ্রণী ভুমিকা নেই. সবার জানা থাকা দরকার জহির রায়হান,শহিদুল্লাহ কায়সার,ফয়েজুল মহি,সেলিনা পারভিন, ভাষা শহীদ সালাম, সেলিম আল দ্বীন,প্রণব ভট্ট,কবি হাবিবুল্লাহ বাহার,কবি মাহমুদা খাতুন সিদ্দিকা,বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন,স্যার এফ রহমান,ঢাবি সাবেক ভিসি আনোয়ার চৌঃ ও এ কে আজাদ চৌ: এদেশের ভাষা,সংস্কৃতি,ইতিহাস,সাহিত্য,শিক্ষা সর্বপোরি মুক্তিযুদ্ধে এসব মানুষগুলোর কি অবদান সেটা বৃহত্তর নোয়াখালীর মানুষদের নিয়ে মনগড়া কাহিনী অবতারনা করার পুর্বে একবার ভেবে দেখা উচিৎ… পরমানু পরিমান একটা দেশের মানুষ যখন রেসিস্ট হয়ে উঠে তখন আর কিছু বলার থাকেনা……………..

(মোট পড়েছেন 2,072 জন, আজ 1 জন)
শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন