দ্বিতীয় যুদ্ধ

- নাজমুল আহসান

তবে আবার জেগে ওঠ অনিল।
ন’বছরের মাধবীলতা, তোর মেয়ে,
সেদিন যে কাপুরুষের পা চেপে ধরে কেঁদেছিল;
সেই জানোয়ারের উত্থিত নখরের বিজয়চিহ্ন
আমার কলজের ভিতর রক্তের স্রোত বইয়ে দেয়!

বদর মিয়া, ঘুমিয়ে পড়েছিস?
তোর বাড়িটা তখন জ্বলছিল দাউদাউ করে।
তুই নেই বলে বেয়নেটের খোঁচায় ফিনকি দিয়ে বেরিয়ে এলো রক্ত,
তোর বৃদ্ধ বাবার অর্ধমৃত বুক থেকে।
সে বেয়নেটে আজ রক্তমাখা জাতির পতাকা বাঁধা।

তোরও কি ভোর হয়নি এখনো পিনু গোমেজ!
ভুলে গেছিস, কীভাবে তোর পোয়াতি বউয়ের পেট চিরে…!
মরে গেলো তোর আট মাসের প্রথম সন্তান।
তুই বলতিস, ছেলে হ’লে নাম রাখবি বিজয়!
দ্যাখ, বিজয়ের রক্তে আজ স্নান করে বুড়ো শকুন!

চল, আবার বেরিয়ে পড়ি।
দাউ-জ্বলা রক্তের আগুনে, তুষ করে দেই বিশ্ববিচারকের আসন।
আমাদের যুদ্ধ শেষ হয়নি। যুদ্ধ কখনো শেষ হয়ে যায় না।

(মোট পড়েছেন 106 জন, আজ 1 জন)
শর্টলিংকঃ

১৯টি মন্তব্য

    1. দাউ-জ্বলা রক্তের আগুনে, তুষ করে দেই বিশ্ববিচারকের আসন। :@
      আমাদের যুদ্ধ শেষ হয়নি। যুদ্ধ কখনো শেষ হয়ে যায় না।

  1. অভিনন্দন কবি! এ কবিতাটি উইকিপিডিয়ায় ‘শাহবাগ’ নিয়ে লেখা পোস্টে সংযুক্তি পেয়েছে। অনেক অভিনন্দন। -{@ -{@

    ……….
    লিংকঃ http://bn.wikipedia.org/wiki/২০১৩-র_শাহবাগ_আন্দোলন

  2. বহ্নি বলেছেন:

    অনীল, বদর মিয়া, পিনু গোমেজ – সব ধর্মের মানুষের রক্তের বিনিময়ে পতাকা পেয়েছি। সে পতাকায় লেগে থাকা কলঙ্কের সব ছাপ মিটিয়ে দিতে হবে।

    1. পতাকায় লেগে থাকা কলঙ্কের সব ছাপ মিটিয়ে দিতে হবে।

  3. কিছুই বলবোনা,শুধু প্রিয়তে নিয়ে নিলাম নিঃশব্দে।

  4. নাইম প্রীতম বলেছেন:

    আমি প্রজন্ম চত্বরে আসা সকল প্রতিবাদী জনতাকে স্বাগত জানাই । কারন আমরা যারা সেখানে জেতে পারছি না , আমাদের হয়ে তারা যেন এই আন্দোলনকে আরও অগ্রসর করে নিয়ে যায়। এই প্রতিবাদী জনতাকে আমি স্রদ্দা জানাই ।
    সালাম হে প্রতিবাদী জনতা।।
    তোমাদের এই আন্দোলন সফল হোক।

    1. সালাম হে প্রতিবাদী জনতা।।
      তোমাদের এই আন্দোলন সফল হোক।

মন্তব্য করুন